মেনু নির্বাচন করুন

কৃষি

কুল বাগানে ফল ছিদ্রকারী উইভিল পোকা ও টিউব স্পিটল বাগ পোকা দমনে কৃষকভাইদের করণীয় কুল আমাদের দেশে একটি গুরুত্বপূর্ণ মৌসুমী ফল। কুল চাষে ইতোপুর্বে পোকামাকড়ের আক্রমন তেমন দেখা না গেলেও বর্তমানে কুল চাষ বাড়ার সাথে সাথে বিভিন্ন পোকামাকড়ের আক্রমন দেখা যাচ্ছে। এদের মধ্যে কিছু পোকা কুলের উৎপাদন বৃদ্ধিতে মারাত্নক প্রভাব বিস্তার করছে। ফলে কুলের উৎপাদন বৃদ্ধি ও ফসলটি রক্ষা করা অত্যন্ত জরুরী। এই পোকামাকড়ের মধ্যে কুল বাগানে ফল ছিদ্রকারী উইভিল পোকা ও টিউব স্পিটল বাগ পোকা অন্যতম। এ সকল পোকা কিভাবে ক্ষতি করে এবং তা দমনে কি কি করণীয় সে বিষয়ে কিছু সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে। ফল ছিদ্রকারী উইভিল পোকা ফল ছিদ্রকারী উইভিল কুল গাছের মারাত্বক ক্ষতিকারক পোকা । কয়েক বছর থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে কুলের উন্নত জাতে এ পোকার আক্রমন দেখা যাচ্ছে। পোকার সদ্যজাত লার্ভা হালকা হলুদ বর্ণের এবং এদের পা থাকেনা। পূর্ণ বয়স্ক পোকা গাঢ় বাদামী থেকে কালো বর্ণের হয়। পূর্ণ বয়স্ক পোকা কচি ফলে ডিম পাড়ে এবং ডিম ফুটে লার্ভা ও পিউপা থেকে পূর্ণ রূপ ধারন করে। এপোকা কিভাবে কুলের ক্ষতি করে থাকে - ১. সদ্য জাত লার্ভা কচি ফলের বীজে আক্রমন করে এবং সমপূর্ণ বীজ খেয়ে ফেলে। আক্রান্ত ফলের নিচে কাল দাগ পড়ে এবং বীজের বৃদ্ধি বন্ধ হয়ে যায়, ফল ছোট গোলাকার হয় এবং ফ্যাকাশে ও হলুদ বর্ণ ধারন করে। আক্রান্ত ফল গাছ থেকে ঝরে পড়ে বা গাছ শুকিয়ে যায়। ২. আক্রান্ত ফলে পোকার লার্ভা বা পিউপা বা পূর্ণ বয়স্ক পোকার মল দেখা যায়। ফলের ভিতরের অংশ খাওয়ার পর গোলাকার ছিদ্র করে পোকা বের হয়ে আসে। ৩. আক্রমনের মাত্রা বেশী হলে বাগানের সকল গাছের ফল আক্রান্ত হয়। তবে আপেল কুল ও বাউ কুলে আক্রমন বেশী হয়। ৪. সাধারণত গাছে ফুল আসার পর এ পোকার আনাগোনা দেখা যায় এবং পরাগায়নের পর গাছে ফল ধরা শুরু হলে পোকার আক্রমন শুরু হয়। ব্যবস্থাপনার জন্যে যা করতে হবে- : ১. কুল বাগানের আশেপাশের ঝোপজঙ্গল ও আগাছা পরিষ্কার করতে হবে। ২. কুল গাছে অসময়ে আসা ফুল ও কুড়ি নষ্ট করে ফেলতে হবে। ৩. গাছ ও মাটিতে পড়ে যাওয়া আক্রান্ত ফলগুলো সংগ্রহ করে লার্ভা বা পিউপা বা পুর্ণ বয়স্ক পোকাসহ ধ্বংস করতে হবে। ৪. বেশি আক্রান্ত এলাকায় ফুল ধরার আগেই সমস্ত বাগান ও এলাকা অনুমোদিত কার্বারাইল জাতীয় কীটনাশক বা ডাইমেথোয়েট জাতীয় কীটনাশক সঠিক মাত্রায় প্রয়োগ করতে হবে। ৫. যেহেতু পোকাটি ফলে ডিম পাড়ে এবং লার্ভা ফলের ভিতর বৃদ্ধি প্রাপ্ত হয় সেজন্যে আক্রমনের আগেই পোকা দমনের ব্যবস্থা নিতে হবে। এজন্য পরাগায়নের পর ফল ধরা শুরু হলে সাইপারমেথ্রিন জাতীয় কীটনাশক সঠিক মাত্রায় প্রয়োগ করতে হবে। কৃষকভাইয়েরা, আপনারা এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত তথ্যের জন্য আপনার নিকটস্থ উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা বা উপজেলা কৃষি অফিসে যোগাযোগ করবেন। এছাড়াও সরকারি কৃষি কল সেন্টার ০৯৬৩৩১২৩১২৩ নম্বরে ফোন করে সরাসরি কৃষি, মৎস্য ও প্রাণী সম্পদের তথ্য পেতে পারেন।